When the Laws of Library Science comes and knocks on your door

When an online Koha Library OPAC is the sole answer to finding an out-of-print book.

This post is somewhat of a personal nature. My love for libraries came from my original passion for Free & Open Source software. Being able to solve people’s problems using open source technology, to be able to preserve our local languages, our history, our culture and then being able to share and disseminate meant a lot to me in my youth. Now on the wrong side of 40s, it still continues to drive me.

Just a while back Parama di (Smt Parama Sarkhel) the librarian at Ramakrishna Sarada Mission Vivekananda Vidyabhavan college shared the following missive over FB Messenger to me:

মাননীয় গ্রন্থাগারীক সমীপেষু,
রামকৃষ্ণ সারদামিশন বিবেকানন্দ বিদ্যাভবন লাইব্রেরি

মাননীয়,

আমি শ্রী বিনোদ ঘোষাল, পেশায় একজন সাহিত্যিক, গত তিন বছর ধরে আমি কাজী নজরুল ইসলামের সমগ্র জীবনকে উপজিব্য করে একতি দীর্ঘ উপন্যাস রচনা করছি। যার প্রথম পর্বটি দীর্ঘ একবছর সংবাদ প্রতিদিনের রোববার পত্রিকায় ধারাবাহিকরূপে প্রকাশ পাবার পর মিত্র ও ঘোষ প্রকাশন থেকে ‘কে বাজায় বাঁশি’ নামে বই আকারে প্রকাশিত হয়েছে।

বর্তমানে আমি উক্ত গ্রন্থের দ্বিতীয় খণ্ড রচনা করছি। রিসার্চের কাজে আমার নরেন্দ্রনারায়ণ চক্রবর্তী রচিত ‘নজরুলের সঙ্গে কারাগারে’ গ্রন্থটি বিশেষ প্রয়োজন। বইটি কলেজস্ট্রিটে বা অন্যত্র খোঁজ করে কোথাও পাইনি।

ইন্টারনেটের সূত্রে দেখলাম আপনাদের লাইব্রেরিতে বইটি রয়েছে। আপনার কাছে অনুরোধ আমাকে অনুগ্রহ করে উক্ত বইটি যদি ফটোকপি করার অনুমতি দেন বা নির্দিষ্ট মূল্যের বিনিময়ে বইটির একটি ফটোকপি দেন তাহলে আমি উপন্যাসটি আরও তথ্যসমৃদ্ধ করে তুলতে পারি।

আশা করি অনুরোধটি বিবেচনা করবেন।

আপনার সাহায্যপ্রার্থী,
বিনোদ ঘোষাল

Briefly, this is a request from Sri Binod Ghosal, a young, multi award winning Bengali novelist and short story writer. He needs access to a book – “Nazrul-r songay karagarey” (lit. ‘In the prison with Nazrul’) by Sri Narendra Narayan Chackroborty, as research material for the next volume of his biographical novel “Ke Baajaye BaNshi” on Kazi Nazrul Islam – a Bengali poet, writer, musician, anti-colonial revolutionary and the national poet of Bangladesh. The book is presently out of print, and Sri Ghosal had no luck in locating a copy of it anywhere in College Street’s Boi para or elsewhere for that matter.

Luckily Google’s search engine came to his assistance. Parama di’s college library OPAC, being hosted online is indexed by Google and her library happens to have a copy of it. As a matter of fact it is probably the sole reference to a copy available at a library and that too within the distance of a local train ride from Sri Ghosal’s residence.

The five laws of library science by S.R. Ranganathan are often learnt rote. As practitioners, we often merely amble in the general direction of the Laws. But precisely in moments like this, when everything falls into place, the laws of Library Science manifest themselves in sheer, brilliant clarity.

As a co-founder of L2C2 Technologies, it is in these few and far between moments, that I once again find the reason and strength to carry on.

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *